Advertise With Us
For Questions, Enquiries, Click Here
Page | Group - Follow us - Call Us - Admin - bdpathan420@gmail.com

দিন যতই যাচ্ছে আমাদের বাংলা ততই প্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে। যার একটি উদাহরণ হিসেবে দেখানো যায় বাংলা কিবোর্ডকে। প্রথমে প্রযুক্তি জগতে অর্থাৎ কম্পিউটার বা টাইপিং মেশিনে বাংলা লেখাটা অনেক কঠিন ছিল। কিন্তু এখন আর তা কঠিন না, দিনদিনই তা সহজ হচ্ছে। প্রথমে কম্পিউটারে বাংলা লেখার জন্য জনপ্রিয় কিবোর্ড ছিল বিজয় কিবোর্ড যার এখনো জনপ্রিয়তা আছে। তারপরে আসে অভ্র কিবোর্ড, যা বাংলা লেখাকে আরো সহজ করে দেয় বিশেষ করে অনলাইনে বাংলা লেখার জন্য যা আপনাদের সবারই জানা। এতক্ষণতো আমরা কম্পিউটারের যুগে ছিলাম, এইবার মোবাইলের যুগে আসি। কম্পিউটারে বাংলা লেখার সফটওয়্যারের মত মোবাইলেও বাংলা লেখার সফটওয়্যারের বেশ কদর। বর্তমানে মোবাইলে অ্যান্ড্রয়েড প্লাটফর্মটি বেশ জনপ্রিয় এবং বাংলা ভাষা ব্যবহারকারী মানুষও প্রায় ৯০% অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহার করেন। যার পরিপ্রেক্ষিতেই বাংলা লেখার অনেক সফটওয়্যার বাহির হয়েছে। যার মধ্যে জনপ্রিয় রিদ্মিক এবং মায়াবী কিবোর্ড। তবে এরমধ্যে রিদ্মিকটাই সবচেয়ে জনপ্রিয়। আর সম্প্রতি রিদ্মিকের মত আরেকটি বাংলা কিবোর্ড রিলিজ হয়েছে যার নাম অ্যাভ্রয়েড কিবোর্ড। যা হুবুহু রিদ্মিক কিবোর্ডের মতই। আসল কথা হচ্ছে এই সফটওয়্যারটি রিদ্মিক কিবোর্ডকে কাস্টমাইজড করে করা হয়েছে। আর অভ্র কিবোর্ডের জাভাস্ক্রিপ্ট কোড নিয়ে করা হয়েছে। এই সফটওয়্যারটি অসাধারণ একটা সফটওয়্যার। যা রিলিজ না হতেই বেশ সাড়া পেলেছে এবং অনেকের কাছে বেস্ট বাংলা লেখার সফটওয়্যার হিসেবে পরিণত হয়েছে। কেননা এর বিশেষ কিছু ফিচারের কারণে। যেমন এতে রয়েছে ১৫০+ ইমোজি, বাড়তি অনেক সিম্বল, থিমসসহ আরো অনেক কিছু। তো আমরা এই পোস্টের মাধ্যমে নতুন রিলিজ হওয়া এই অ্যাভ্রয়েড কিবোর্ডটি সহজলভ্যভাবে ব্যবহার করার জন্য কিছু সেটিংস সম্পর্কে জানবো। যা হয়তো আপনারা পোস্টের শিরোনাম দেখে কিছুটা বুঝতে পেরেছেন।

এতক্ষণতো অনেক কথা বললাম, এইবার মূল কথায় আসি। আমি যে কারণে এই পোস্টটি করেছি, সেটা হলো কিভাবে এই অ্যাভ্রয়েড কিবোর্ড সফটওয়্যারটিতে বিজয় কিবোর্ডের লেআউট ব্যবহার করে বাংলা লেখা লিখবেন। যা রিদ্মিক কিবোর্ডের পুরাতন ভার্সনে ছিল। বিশেষ করে আমরা যারা কম্পিউটার ব্যবহারকারী। অর্থাৎ কম্পিউটারে বিজয় কিবোর্ড দিয়ে বাংলা টাইপ করা শিখেছি। তারা এই লেআউটে টাইপ করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি বা দ্রুত টাইপ করতে পারি। তাই এই লেআউটে টাইপ করতে আপনাকে অ্যাভ্রয়েড কিবোর্ডের সেটিংসে যেতে হবে। সেটিংস অপশনে যাওয়ার পর কি করতে হবে তা জানতে নিচের স্ক্রিনশট ফলো করুন।
উপরের স্ক্রিনশটে দেখুন লেখা আছে "Bangla Fixed Layout” এটাতে ক্লিক করুন। ক্লিক করার পর দেখবেন এখানে ডিফল্টভাবে "Probhat" দেওয়া আছে। আপনি এটাকে চেইঞ্জ করে "Univroid" ক্লিক করুন। ব্যাস! আপনার কাজ শেষ। এইবার টাইপ করতে যান, সেখানে গিয়ে "অভ্র" থেকে "ইউনিভ্রয়েড" করুন। দেখবেন কিবোর্ডের লেআউটটা বিজয় কিবোর্ডের মত হয়ে গেছে। এইবার আরামছে টাইপ করুন দ্রুত গতিতে।
আর হ্যাঁ! পোস্টের শিরোনামের ব্যাকেটে যে বলেছিলাম, সাথে আরো একটা টিপস। সেটা হলো রিদ্মিক কিবোর্ডে যারা টাইপ করেন, তারা হয়তো খেয়াল করবেন উপরের স্ক্রিনশটের মত যতিচিহ্নের বার থাকে। যা আমাদের টাইপ করার সময় সহজে বিভিন্ন চিহ্ন দিতে সাহায্য করে। কিন্তু এই অ্যাভ্রয়েড কিবোর্ডে এই যতিচিহ্নের বার শো করেনা। তো এটা শো করাতে আপনাকে যা করতে হবে। প্রথমে অ্যাভ্রয়েড কিবোর্ডের সেটিংস অপশনে যেতে হবে।
তারপর উপরের স্ক্রিনশটের মত "Punctuation Suggestion" বাটনে টিক চিহ্ন দিন। এইবার টাইপ করতে যান, দেখবেন ঐ যতিচিহ্নের বারটি শো হয়েছে। ব্যাস! সেটিংসের কিছু পরিবর্তন করে অ্যাভ্রয়েড কিবোর্ডটি ব্যবহার করতে থাকুন। আমি আবারও বলছি এই কিবোর্ডটি অসাধারণ একটা কিবোর্ড। যারা এখনো ব্যবহার করেননি, তারা আজই এটি ব্যবহার করে দেখুন। মনে রাখবেন এই কিবোর্ডটি সামনে আরো নিত্যনতুন ফিচার নিয়ে হাজির হবে। যা আমাদের বাংলা টাইপকে আরো সহজতর করে দিবে।

পোস্টের শেষে "ধন্যবাদ" জানাই তাদেরকে, যারা আমাদের বাংলা টাইপকে সহজতর করার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। আপনাদেরকে জানিয়ে দেই এই অ্যাভ্রয়েড কিবোর্ডটি তৈরি করেছেন, নাঈম আদর ও জুনায়েদ আহনাফ নিরজর। আর ডিজাইন করেছেন, মিনহাজুল আবেদীন। কন্টেন্ট করেছেন, সাইফ হাসান।

এইবার চলুন অন্যান্য জনপ্রিয় বাংলা সফটওয়্যারগুলোর তৈরিকারীর নামগুলোও জেনে নেই। বিজয় কিবোর্ড তৈরি করেছেন, মোস্তফা জাব্বার (বর্তমান তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী)। অভ্র কিবোর্ড তৈরি করেছেন, মেহেদি হাসান খান। এবং রিদ্মিক কিবোর্ড তৈরি করেছেন, শামীম হাসনাথ।

Post a Comment

plz! wait for reply.

 
Top